আমার মনে হয় আমি এখন এডভান্স লেভেলের জন্যে প্রস্তুত আছি , কিভাবে আমার ট্রেইনিং এ পরিবর্তন আনব ?

আপনি বলছেন আপনি এখন এডভান্স লেভেলের জন্যে প্রস্তুত, তাহলে আমিধরে নিব আপনি এই পর্যন্ত অনেক চরাই উতরাই পার করে এসেছেন; 
এর মাঝে আপনি অনেক ধরনের ট্রেইনিং করেছেন , বেশ কিছু ডায়েট ফলো করেছেন। আমার পরামর্শ হলো - এইভাবেই চালিয়ে যান। এখানে পরিবর্তনের কিছু নেই। 

আমি আপনাকে মনে করিয়ে দিতে চাই কিছু বডিবিল্ডিং এর বেসিক বিষয় সম্পর্কে; সঠিক ফর্মে ব্যায়াম করুন এবং বডীকে ভালো করে পাম্প করুন। 
আপনার মুল লক্ষ্য মাস বিল্ডিং করা, আর এর জন্যে যা করতে হবে তা আপনি পুর্বেই করে এসেছেন, এখন আপনাকে শুধু একটু স্মরণ করিয়ে দেয়া। এবং এর জন্যে অবিরত কাজ করতে থাকুন।

যদি আপনি আমার মতো হন , তাহলে আপনাকে ধৈর্য ধরতে হবে, কৌশল দিয়ে হবেনা। 
বডিবিল্ডিং আপনাকে চালিয়ে নিতে হবে, যেকোনো ভাবেই। এটা আপনার রক্তের সাথে মিশে যেতে হবে, মনের সাথে নয়। 
আপনি রাত্রে ঘুমাতে যাবেন পরের দিনের ওয়ার্ক আউটের চিন্তা মাথায় নিয়ে। 
আপনার স্বপ্ন হবে, আপনি জিমে অনেক পরিশ্রম করছেন, ঘাম ঝরাচ্ছেন,অনেক ওয়েট তুলছেন, ব্যক্তিগত রেকর্ড করে চিয়ার করছেন পার্টনারের সাথে। 
আপনি যখন জাগবেন, তারপর আপনার কাজ শুরু করার পুর্বে আগে ভালো করে সকালের ব্রেকফাস্ট করে নিন। 
আর নয়তো জিমে গিয়ে ওয়েটের সুস্বাদু ব্যথা থেকে নিজেকে প্রতিহত করতে অক্ষম হতে পারেন। 
আপনার কাছে এমন কোনো চার্ট অথবা গ্রাফ নেই, নেই কোনো ধারনা প্রতি রেপিটেশনের পর কত কত ফাইবার চিঁরে যাবে। 
আপনাকে হার্ড লিফটিং করতে হবে, হেভি ওয়েট নিতে হবে যে পর্যন্ত আপনি পারেন। কারন , আপনি পৃথিবীকে জয় করতে এসেছেন।
 যখন আপনি জিম থেকে বাসায় যাবেন তখন আপনার মাথায় একটা জিনিস কাজ করবে আমি পরবর্তী দিন আজকের চেয়েও ভালো করার চেস্টা করব। তাহলেই আপনি ভালো করতে পারবেন । 

এইভাবেই আপনাকে নিজেকে এডভান্স লেভেলে আনতে হবে। 
আপনি অবিরত আগে পারতে পারবেন যদি আপনি নিজের মেন্টালিটি কে বিগেনার হিসাবে সেট করতে পারেন। 
অবশ্যই আপনি এই বিষয়ে এখন দক্ষ কিন্তু তাই বলে আপনি এতোটাও অভিজ্ঞ নয়। তাই আপনার মাথার মগজকে আপনার ওয়ার্ক আউটে প্রভাবিত করতে যাবেন না। 
ভাবুন আপনি এখনো এতো উপরের লেভেলেও আসেন নাই। মাসল মেস শক্তি দ্বারা উৎপন্ন, আর শক্তি ক্ষুধার দ্বারা। 
আপনি আকারে বাড়ছেন কারন আপনি এখনো প্রচন্ড শক্তি দিয়ে ওয়েট  লিফট করছেন এবং আপনি এর শেষ দেখতে পাচ্ছেন না। 

আমার ট্রেইনিং এর ২৭ বছর পর এখনও আমি চিন্তিত্‌ আমি এখণ নিজেকে ছোট মনে করি,এখনো বড় হওয়ার চেস্টা করে যাচ্ছি। 
আমি নিজেকে কোনো ষ্টেজে ধরতে পারিনা, একজন বিগেনার হিসাবে না, আবার একজন ইন্টারমিডিয়েট লেভেলের ও নাহ, এমনকি একজন প্রো হিসাবেও নাহ; 
তাছাড়া আমি মাস বিল্ডিং এবং সেইপ এক্সারসাইজের মধ্যে কোনো পার্থক্য করতে পারিনা। প্রতিটা এক্সারসকাইজ আমি করি মাস এর জন্যে এবং শক্তির জন্যে। 
আমি শুধু মাত্র দুই ধরনের এক্সারসাইজ করি প্রতিটি বডী পার্টের জন্যে। কারন প্রতিটি মাস বিল্ডীং এক্সারসাইজেই ফিট ওয়ার্ক আউট বিদ্যমান। তারাই ফিট রাখে, এটাই দুই ভাগে করা। 

যদি আপনি আমকে ২০ বছর আগে ট্রেইন করতে দেখতেন, তাহলেই বুঝতে পারতেন আজকে কিভাবে এতো ওয়েট তুলতে পারছি। 
আমার জন্যে, প্রতিটি ওয়ার্ক আউটই একটি ব্র্যান্ড- নতুন একটি লক্ষ্যঃ আমি চেস্টা করব আগের এক্সারসাইজ গুলোরই আরও এক পাউন্ড বেশি তোলার , 
অথবা চেস্টা করব আরেকটি রেপ্স বেশি মারার জন্যে অথবা চেষ্টা করব আর একটা রেপ্সের কিছুটা হলেও তোলার জন্যে, অথবা আর এক রেপ্সের এক ইঞ্চি হলেও তোলার জন্যে। 
এইভাবেই আমি নতুন চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হই। 


Articles Category: TRAINING TIPS .

Share: